বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষ কোন কিছু করার পূর্বে অনলাইনে বা গুগলে সে বিষয়ে সার্চ দিয়ে বিস্তারিত জেনে নেয়। এবার সেটা হোক কোন দ্রব্য, প্রতিষ্ঠান, ভ্রমনের স্থান, চিকিৎসা সেবা বা আইনি সেবা। এভাবে অনলাইনের মাধ্যমে খুব দ্রুত ও সহজেই যেকোন ব্যবসা মানুষের কাছে পরিচিতি পাচ্ছে ও আস্থা গড়ে তুলতে সক্ষম হচ্ছে। তাই ব্যবসায়ে সফল ও অধিক পরিচিতি লাভের জন্য যে যে কাজ গুলো করতে হবে তা নিম্নে দেয়া হলো।

ফার্নিচার ব্যবসার ওয়েবসাইট তৈরি-

যদি আপনার একটি ছোট বা বড় ব্যবসা থাকে তো নিঃসন্দেহে আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকা প্রয়োজন। যদি আপনার কোন ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট না থাকে তাহলে ক্রেতা ধরেই নিতে পারে এটি একটি সল্প সাময়িক কোম্পানি এবং আপনি আপনার ব্যবসা সম্পর্কে সচেতন বা দায়িত্বশীল নন। এভাবে আপনি ক্রেতাদের বিশ্বাসযোগ্যতা হারাতে পারেন। একটি ওয়েবসাইট আপনার ব্যবসা সম্পর্কে মানুষের মনে আস্থা গড়ে তুলতে পারে। তাই বলা যেতেই পারে আপনার সাইটটিই হতে পারে কোন ক্রেতাকে আকর্ষণ করার প্রথম সুযোগ ও অন্যতম উপায়। বর্তমানে বেশিরভাগ দায়িত্বশীল কোম্পানির নিজস্ব ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট রয়েছে। তাই যদি আপনার ব্যবসার নিজস্ব কোন ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট না থাকে তো আপনার ব্যবসা অন্য সেই সকল ব্যবসা থেকে পিছিয়ে পড়বে যাদের নিজস্ব ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট রয়েছে।

আধুনিক বিশ্বে বহু আগে থেকেই ওয়েবসাইটের প্রচলন রয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশের জন্যেও এটি একটি সম্ভবনাময় ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে। বড় বড় কর্পোরেশন ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান গুলো আন্তর্জাতিকভাবে ব্যবসায়িক লেনদেনের জন্য ও পরিচিতি লাভের জন্য ওয়েবসাইটকে তাদের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করে থাকে।

ফার্নিচার ব্যবসার ওয়েবসাইট অর্ডার করতে আপনার যে তথ্য সমূহ লাগবে-

আপনি সরাসরি আমাদের অর্ডার বাটনে ক্লিক করে অর্ডার দিতে পারেন। অথবা অনলাইনে অর্ডার করতে না পারলে আপনার যাবতীয় তথ্য সমূহ আমাদের মেইল করুন। ইমেইল: [email protected]

  • আপনার নাম
  • ইমেইল
  • মোবাইল নাম্বার
  • ঠিকানা
  • পোষ্ট কোড
  • ডোমেইন নাম
  • Name
  • Email
  • Mobile
  • Address
  • Post Code
  • Domain Name

ডোমেইন হোস্টিং অর্ডার করার পাঁচ মিনিটের মধ্যে আপনার মেইলে ডোমেইন কন্ট্রোলার এবং হোস্টিং কন্ট্রোলার প্যানেলে চলে যাবে। কোন ত্রুটির কারনে মেইল ইকবক্সে না পেলে স্প্যাম বক্সে চেক করবেন।

ফার্নিচার ব্যবসার ওয়েবসাইট ডিজাইন করার পূর্বে আপনাকে যা দিতে হবে-

  • লোগো
  • আপনার বিজনেস ঠিকানা
  • বিজনেস মোবাইল নাম্বার
  • ক্যাটাগরী সমূহের নাম
  • ৫০ টা প্রোডাক্ট এর- ছবি, নাম, বিবরন, মূল্য বা দাম ইত্যাদি।
  • বিকাশ, রকেট, নগদ নাম্বার পেমেন্টে নেয়ার জন্য।

আপনার জন্য যা যা থাকবে-

  • ২জিবি SSD হোস্টিং (হোস্টিং বাড়ানো কমানোর সুযোগ রয়েছে)
  • সি-প্যানেল কন্ট্রোলার
  • সফটওয়্যার ভার্সন- ওয়ার্ডপ্রেস
  • একটি ফ্রি ডোমেইন (প্রথম বছরের জন্য)
  • ডোমেইন কন্ট্রোলার
  • সি-প্যানেল কন্ট্রোলার
  • ওয়ার্ডপ্রেস কন্ট্রোলার
  • এডমিন প্যানেল
  • ১০০% মোবাইল ভিউ
  • ৯৯% আপটাইম গ্যারান্টি
  • ডোমেইন হোস্টিং ট্রান্সফার সুবিধা

যোগ করতে পারেন মাল্টি ভেন্ডর-

আপনার সাইটে মাল্টি ভেন্ডর সিস্টেম প্রয়োজন হলে আমাদেরকে মেইলে জানাবেন আমরা সেটআপ করে দিব। সে ক্ষেত্রে কোন ধরনের খরচ লাগবে না।মাল্টি ভেন্ডর সাইটে যা যা থাকে –

  • ভেন্ডরগন তাদের ইমেইল এবং তাদের বৃত্তান্ত দিয়ে একাউন্ট খুলবে এবং আপনি যা যা ইনফরমেশন ব্যবহারকারীর থেকে চান তা সংগ্রহ করার সিস্টেম থাকবে |
  • আপনার ওয়েব সাইটের সকল লেনদেন আপনি নিজে এপ্রুভ করবেন এবং বিভিন্ন খাত যেমন- ব্যাংক একাউন্ট, বিকাশ, রকেট ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন।
  • ভেন্ডরগন সহজেই আপনার ওয়েবসাইটটি মোবাইলে এবং ডেক্সটপ এ ইউজ করতে পারবে।
  • প্রত্যেকটা ইউজারের ডিটেইল লোকেশন, কন্টাক্ট নাম্বার, ইমেইল , আইপি অ্যাড্রেস ইত্যাদি আপনার কাছে থাকবে।

 

ফার্নিচার ব্যবসার ওয়েবসাইট পেমেন্ট গেটওয়ে সম্পর্কে তথ্য-

আপনার সাইটে অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে লেনদেন করতে চাইলে পেমেন্ট গেটওয়ে যুক্ত করতে হবে। বাংলাদেশে বেশ কিছু কোম্পানি পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস দিয়ে থাকে। SSL COMMERZ, aamarPay, shurjoPay, Walletmix, PortWallet ইত্যাদি নাম গুলো হচ্ছে পেমেন্ট গেটওয়ে কোম্পানি। একেক জনের সার্ভিস ফি একেক রকম। পেমেন্ট গেটওয়ে নেয়ার জন্য আপনার দরকার হবে।

১। ট্রেড লাইসেন্স এর হালনাগাদ কপি

২। আপনার ২ কপি ছবি

৩। আপনার ভোটার আইডি

৪। ব্যাবসায়ের ব্যাংক একাউন্ট

ফার্নিচার ব্যবসার ওয়েবসাইট এর জন্য ফেইসবুক পেইজ তৈরি-

দেশের মোট ইন্টারনেট ইউজারের ৮০% প্রথমে কোন কিছু খোঁজ করে ফেইসবুকে। তাই আপনার ব্যবসায়ের নামে একটি ফেসবুক বিজনেস পেজ ওপেন করবেন। সকলের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করার জন্য দ্রুত ও সহজতর উপায় ফেসবুকে বিজনেস পেজ । এর মাধ্যমে সহযেই আপনি লাইভ চ্যাট সুবিধা দিতে পারবেন।

Robi Cloud Facebook Page

ফেইসবুক বিজনেস পেইজ খুলতে না পারলে আমাদের সাহযোগীতা নিতে পারেন।

ব্যবসার পরিচিতির জন্য Google My Business পেইজ তৈরি-

প্রথমত আপনার ব্যবসাকে ইন্টারনেট জগতে তুলে ধরার জন্যই আপনি Google My Business পেইজটি ব্যবহার করবেন। গুগল সার্চ এবং গুগল ম্যাপে আপনার প্রতিষ্ঠান লিপিবদ্ধ থাকবে। আপনার প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা, অফিসের সময়সূচী, ফোন নাম্বার, ইমেইল ইত্যাদি তথ্য ভিজিটর খুব সহজেই দেখতে পারবে। গুগল ম্যাপে আপনার প্রতিষ্ঠান খুঁজে পাওয়া যাবে খুব সহজেই এবং কিভাবে সেখানে Uber, Pathao, বাসে, রিক্সায় বা পায়ে হেটে যাওয়া যায় সেই নির্দেশনাও পাওয়া যাবে।  সবচেয়ে বড় কথা Google My Business এর মাধ্যমে আপনার প্রতিষ্ঠানটি গুগল কর্তৃক ভেরিফাইড হবে যা আপনার কাস্টমারদেরকে দিবে বাড়তি নির্ভরতা। এছাড়াও এর মাধ্যমে যে কেউ আপনার প্রতিষ্ঠানের রিভিউও করতে পারবে।

Demo Design #1: Marketo Furniture (মূল্য- ১৫,৭০০/-)  Demo Design #2: Innova Furniture (মূল্য- ১৬,৫০০/-)  Demo Design #3: Furniture House (মূল্য- ১৮,২০০/-)  Demo Design #4: Woody Furniture (মূল্য- ১৮,২০০/-)  Demo Design #5: Furnihaus Furniture (মূল্য- ১৮,২০০/-)  Demo Design #6: Sofani Furniture (মূল্য- ১৮,২০০/-)  Demo Design #7: Grand Furniture (মূল্য- ১৮,৭০০/-)  Demo Design #8: BoxShop Furniture (মূল্য- ১৮,২০০/-)  Demo 9: BigShopper Furniture (মূল্য- ১৫,০০০/-)  Demo Design #10: Airi Furniture (মূল্য- ১৭,২০০/-) 

আপনার পছন্দের ডেমো (Demo Design) অর্ডার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

1 Shares:
Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *